» সিলেটে বন্যার প্রভাব: বাড়ছে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম

প্রকাশিত: ২২. জুলাই. ২০১৯ | সোমবার

সিলেটে বন্যার প্রভাব: বাড়ছে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম

 

কয়েকদিন ধরে পাহাড়ী ঢল বা অতিবৃষ্টির ফলে সিলেটে বন্যা দেখা দেয়। সুরমা, কুশিয়ারার পানি সীমারেখা অতিক্রম করে। জেলার বিভিন্ন উপজেলায় বন্যা দেখা দেয়। এমনকি নগরীর শাহজালাল উপশহর এলাকাও পানিতে তলিয়ে যায়। রাস্তাঘাট, স্কুল, কলেজ বন্ধ ঘোষনা করা হয়। তবে- পানি কমার সাথে সাথে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোও খুলতে শুরু হয়েছে।

টানা বৃষ্টি আর বন্যায় নগরবাসীর জীবনে চরম ভুগান্তি নেমে এসেছে। শাক-সবজি থেকে শুরু করে নিত্যপ্রয়োজনীয় প্রতিটি জিনিসপত্রের দাম দ্বিগুন বাড়ছে। অসাধু ব্যবসায়ীরা বন্যার অজুহাত দেখিয়ে লাফিয়ে লাফিয়ে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম বাড়াচ্ছেন।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়- বন্যার প্রভাব বেশী পড়েছে কাঁচাবাজারে। হঠাৎ করেই বেড়েছে কাঁচামরিচ, করলা, টমেটো, বরবটি ও শসাসহ বিভিন্ন সবজির দাম। তাছাড়া কয়েক সপ্তাহ ধরে চড়া দামে বিক্রি হওয়া পণ্য পেঁয়াজ, রসুন ও আদার দাম আরও বেড়েছে। সবজির দাম বেড়ে যাওয়ায় ব্রয়লার মুরগি ও ডিমের দাম আরও বেড়েছে। এ ছাড়া মাংসসহ অন্যান্য পণ্যের দামে তেমন পরিবর্তন হয়নি।

খুচরা বাজারে গত সপ্তাহজুড়ে প্রতি কেজি কাঁচা মরিচ মানভেদে ১২০-১৪০ টাকায় বিক্রি হয়। আজ রাতে কাঁচামরিচের দাম আরও বৃদ্ধি পায়। বাজারে শসার দামও বাড়তি। প্রতি কেজি শসা ১০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। গাজর প্রতি কেজি ৬০টাকা, মুকি ৩০ টাকা, আলু ৩০ টাকা, পিয়াজ ৩৫-৪০ টাকা, করলা ও বরবটির কেজি ৮০ টাকা এবং টমেটো কিনতে গুনতে হচ্ছে ১০০ টাকা। এ ছাড়া অন্যান্য সবজির দাম কেজিতে ১০ থেকে ২৫ টাকা বেড়েছে। প্রতি কেজি চিচিঙ্গা, কাঁকরোল, বেগুন ৬০ থেকে ৭০ টাকা। ঢেঁড়স, পটোল, ঝিঙ্গা ও পেঁপে ৪০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে।

সবজি বিক্রেতারা বলেন, দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বন্যা ও টানা বৃষ্টির কারণে সবজির দাম বাড়ছে। উত্তরাঞ্চলের বন্যার কারণে কাঁচামরিচ ও সবজির সরবরাহ কম থাকায় দাম বেড়ে যাচ্ছে। বন্যার প্রভাবে কাঁচাবাজারে পণ্যের দাম বাড়তে থাকবে।

তবে বিক্রেতারা অভিযোগ করেন, যৌক্তিক কারণ ছাড়াই গত কয়েক সপ্তাহ পেঁয়াজ, রসুন ও আদা কিনতে চড়া দাম দিতে হচ্ছে। একই সময় কয়েক জেলায় বন্যা থাকার অজুহাত দেখিয়ে কাঁচামরিচ ও সবজির দাম বাড়িয়ে দিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। এতে বাজারের খরচ বেড়ে গেছে অনেক।

সপ্তাহের ব্যবধানে ব্রয়লার মুরগির দাম প্রতি কেজি ১২০ থেকে ১৪০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। লেয়ার ১৯০ থেকে ২০০ টাকা প্রতি কেজি। আকারভেদে সোনালি মুরগি বিক্রি হচ্ছে প্রতি পিস ২২০ টাকা থেকে ২৫০ টাকা। এ সপ্তাহে গরুর মাংস বাজারভেদে ৪৫০ থেকে ৫০০ টাকা। ছাগলের মাংস ৭৫০ থেকে ৮০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের দাম বাড়ায় হিমশিম খেতে হচ্ছে মধ্যবিত্ত থেকে শুরু করে স্বল্প আয়ের মানুষের। তাদের সাথে আলাপকালে জানা যায়- হঠাৎ করেই বন্যার অজুহাতে সবজি সহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম বৃদ্ধি পাওয়া ভুগান্তি সৃষ্টি হয়েছে।

Share Button

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ২৯ বার

Share Button

সর্বশেষ খবর

Flag Counter