» ডেঙ্গুতে শিশুরা কেন বেশি মারা যাচ্ছে?

প্রকাশিত: ০৬. সেপ্টেম্বর. ২০১৯ | শুক্রবার

ডেঙ্গুতে শিশুরা কেন বেশি মারা যাচ্ছে?

ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার খুলনা মেডিকেল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় পাঁচ বছর বয়সী শ্রাবন্তীর। পাবনার সাঁথিয়ায় স্থানীয় হাসপাতালে মারা যায় বিপাশা পাল (১২)। বুধবার মারা যায় ভিকারুননিসা নূন স্কুল এন্ড কলেজের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরের মেয়ে অস্মিতা (১৩)।

তাদের মৃত্যুর তথ্য এখনো পর্যন্ত সংগৃহীত হয়নি রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) ডেথ রিভিউ কমিটিতে। তবে প্রতিষ্ঠানটির তথ্য অনুযায়ী এ পর্যন্ত ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৫৭ জনের। এদের মধ্যে ১৯ জনই শিশু। শতকরা হিসেবে যা ৩৩ শতাংশ।

এ পর্যন্ত আইইডিসিআর’র কাছে ডেঙ্গু সন্দেহে ১৯২টি মৃত্যুর তথ্য পাঠানো হয়েছে। এর মধ্যে ৯৬টি মৃত্যু পর্যালোচনা করে ৫৭টি মৃত্যু ডেঙ্গুজনিত বলে নিশ্চিত করেছে কমিটি।

ডেঙ্গুতে শিশুরা কেন বেশি মারা যাচ্ছে এমন প্রশ্নের উত্তরে চিকিৎসকরা বলছেন, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম থাকা, বিশেষায়িত আইসিইউর ঘাটতি এবং অতিরিক্ত পানিশূন্যতার কারণে ডেঙ্গু আক্রান্ত শিশুরা মারা যাচ্ছে।

ঢাকা শিশু হাসপাতালের সহকারী অধ্যাপক ডা. রবি বিশ্বাস বলেন, ডেঙ্গু রোগীর জন্য ফ্লুইডের ব্যবস্থাপনা একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। বড়দের ক্ষেত্রে এটি কিছুটা সহজ হলেও শিশুদের ক্ষেত্রে তা অনেকটাই জটিল। অভিজ্ঞ চিকিৎসক ছাড়া এই ব্যবস্থাপনা করা খুবই কঠিন। এ ছাড়া শিশুদের জন্য বিশেষায়িত আইসিইউ’র ব্যবস্থাও আমাদের দেশে তেমনভাবে গড়ে ওঠেনি। ফলে ডেঙ্গু আক্রান্ত শিশুদের অবস্থা জটিল হয়ে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ছে।

এ প্রসঙ্গে প্রিভেনটিভ মেডিসিন বিশেষজ্ঞ এবং হেলথ এন্ড হোপ হাসপাতালের পরিচালক ডা. এম এইচ চৌধুরী লেনিন বলেন, ডেঙ্গু শনাক্তের আগে ও পরে বাড়িতে থাকা অবস্থায় শিশুকে যে পরিমাণ তরল খাবার দেয়ার কথা তা শিশু গ্রহণ করে না। এটি শিশুর অনীহার কারণেই হয়ে থাকে। ফলে পানিশূন্যতা অবস্থায় শিশুকে হাসপাতালে আনা হয়। তখন শিশুর শরীরে ফ্লুইডের ভারসাম্য ফিরিয়ে আনা অনেক বেশি কঠিন হয়ে পড়ে। শিশুর দেহে ফ্লুইডের ভারসাম্যের ক্ষেত্রে অনেক বেশি সতর্কতা অবলম্বন করতে হয়। তা ছাড়া আরেকটি কারণ হচ্ছে, শিশুর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অনেক কম। এ অবস্থায় ডেঙ্গুর ভাইরাসের সঙ্গে শিশুরা পেরে উঠে না।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ইমার্জেন্সি অপারেশনস সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের তথ্য অনুযায়ী, গত ১ জানুয়ারি থেকে ৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ডেঙ্গুতে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৭৪ হাজার ৩৫৩ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় (৪ সেপ্টেম্বর সকাল ৮টা থেকে ৫ সেপ্টেম্বর সকাল ৮টা) নতুন করে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছে ৭৮৮ জন। এর মধ্যে ঢাকায় ৩৩১ ও ঢাকার বাইরে ৪৫৭ জন আক্রান্ত হয়েছে।

আগের দিন বুধবার মোট আক্রান্ত হয়েছিল ৮২৯ জন। সারাদেশে বর্তমানে মোট ভর্তি রোগীর সংখ্যা ৩ হাজার ৩৭১ জন। এর মধ্যে ঢাকার ৪১টি সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে ১ হাজার ৭২৯ জন এবং অন্যান্য বিভাগে ১ হাজার ৬৪২ জন। নতুন করে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৪ শতাংশ কমেছে। ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি রোগীদের অধিকাংশই সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

সরকারি হিসাব অনুযায়ী, এ পর্যন্ত ছাড়পত্রপ্রাপ্ত রোগীর হার ৯৫ শতাংশ। সংখ্যার হিসাবে তা ৭০ হাজার ৭৯০ জন। এর মধ্যে ঢাকার বাইরে বিভিন্ন বিভাগের হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন ৩০ হাজার ১৬১ জন।

সূত্র : ভোরের কাগজ

Share Button

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৩০ বার

Share Button
  • রবিবার ( সকাল ৭:১৪ )
  • ২০শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং
  • ২১শে সফর, ১৪৪১ হিজরী
  • ৫ই কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ ( হেমন্তকাল )

সর্বশেষ খবর

Flag Counter