» আহাদ ভাই: জন্মের শুভক্ষণ সমুজ্জ্বল প্রীতিময় হোক

প্রকাশিত: ০১. অক্টোবর. ২০১৯ | মঙ্গলবার

আহাদ ভাই: জন্মের শুভক্ষণ সমুজ্জ্বল প্রীতিময় হোক

 

 

কামিল তালুকদার: দীর্ঘ দেড়যুগেরও বেশি সময় ধরে মানব সেবায় নিয়োজিত সদা হাস্যজ্জল ব্যক্তি গোলাপগঞ্জে সাংবাদিকতার প্রাণ পুরুষ আব্দুল আহাদ। নিন্দিত কাজকে নন্দিত করে যারা, তারাই সমাজ সেবক। সমাজের সেবা করতে হলে অর্থ নয় প্রকৃত মানসিকতার প্রয়োজন, শিক্ষা নয় প্রয়োজন মানবিকতা। আমাদের সমাজের একটি ভ্রান্ত ধারণা অর্থ না থাকলে কিছুই হয় না। মীর মোশাররফ হোসেন তার বিষাদ সিন্ধু গ্রন্থে লিখেছেন, অর্থই অনর্থের মূল, কথাটি ধ্রুব সত্য। সমাজের নেতা হতে হলে সাধারণ মানুষের সাথে অর্থ কিংবা ক্ষমতার বড়াই দেখালে হবে না। সৌজন্যমূলক আচরণই আপনাকে নেতার সুউচ্চ স্থানে নিয়ে যেতে পারে।

একজন প্রকৃত নেতা হতে হলে সর্বাগ্রে সমাজের লোকজনের মানসিকতা বুঝতে হবে, তার পর তাদেরকে দিয়ে কাজ করানো সম্ভব, তার উদাহরণ সাংবাদিক আব্দুল আহাদ। যিনি একাধারে গোলাপগঞ্জ প্রেসক্লাব সভাপতি, গোলাপগঞ্জ বাজার বণিক সমিতির সফল সাধারণ সম্পাদক এবং সিলেট পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি (১) এর সাবেক সচিব। সামাজিক অঙ্গনের প্রিয় ব্যক্তিত্ব, নানা পেশায় কর্ম ব্যস্ত এই মানুষটির জন্মদিন আজ।

০১ অক্টোবর জন্মদিনে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সাংবাদিক সহকর্মী , ব্যবসায়ী, রাজনীতিবিদ, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, সংসস্কৃতিক, ধর্মীয় ব্যক্তিত্ব ও শুভানুধ্যায়ী সহ নানান শ্রেণী পেশার মানুষের শুভেচ্ছা, ভালোবাসা আর দোয়ায় সিক্ত গোলাপগঞ্জবাসীর আস্থাভাজন সবার পরিচিত মুখ সাংবাদিক আব্দুল আহাদ।

একযুগ ধরে গোলাপগঞ্জের সাংবাদিক সমাজকে সুসংগঠিত রেখে নেতৃত্ব দিয়ে যাচ্ছেন তিনি। নবাগত সংবাদকর্মীদের অনুপ্রেরনা আস্থার প্রতীক, সমাজ সংস্কারক, আদর্শিক গুরু পরম আস্থাভাজন, যাকে খুব কাছ থেকে দেখার সৌভাগ্য হয়, যিনি আপন হয়ে ওঠার এক আপন আদর্শজন। তিনি সাংবাদিকতা জগতের উজ্জ্বল আলোকিত বাতিঘর। এক সুবিশাল জ্ঞানবৃক্ষের অনন্য মানুষ। তাঁর সহমর্মিতার হস্ত প্রসারিত থাকে সব সময় সবার জন্য। তিনি পরম শ্রদ্ধেয় আব্দুল আহাদ । আজ তাঁর জন্মদিন। জন্মের শুভক্ষণ সমুজ্জ্বল প্রীতিময় হোক। শ্রদ্ধায় ভালোবাসায় অভিনন্দন বার্তা। জীবনের প্রতি পরতে আনন্দক্ষণগুলো আপনাকে ছুঁয়ে ছুঁয়ে থাকুক। বিপদ মুক্ত হোক চলার পথ। আপনার দীর্ঘায়ূ যেনো আমাদের আয়ূক্ষণকে দীর্ঘায়িত করে। আপনার স্নেহ ছায়ায় যেনো অনেক বছর পথ চলা হয় আমাদের। আমরা আপনাকে শিক্ষক অবিভাবক হিসেবে পেয়ে থাকি। আপনার বিনয়ী উদারতার স্পর্শে আমাদের নেতিবাচক দিকগুলো দূরীভূত হতে বাধ্য হয়। আমাদেরকে ভালোবাসা দেয়ার জন্য – স্নেহ দেয়ার জন্য, শত কৃতজ্ঞতায় কৃতার্থ আপনার কাছে।

লেখক: তরুণ সংবাদকর্মী

Share Button

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ১০৮ বার

Share Button
  • রবিবার ( সকাল ৭:২৮ )
  • ২০শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং
  • ২১শে সফর, ১৪৪১ হিজরী
  • ৫ই কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ ( হেমন্তকাল )

সর্বশেষ খবর

Flag Counter