কাতার প্রবাসী গীতিকারের কাজ দেখেও আমি আনন্দিতঃরাষ্ট্রদূত জসীম উদ্দিন এনডিসি

কাতার প্রবাসী গীতিকারের কাজ দেখেও আমি আনন্দিতঃরাষ্ট্রদূত জসীম উদ্দিন এনডিসি

কাতার প্রতিনিধিঃ

কাতারে জমকালো আয়োজনের মধ্য দিয়ে বিডি২৯ মাল্টিমিডিয়ার ইউটিউব চ্যানেল-এ রিলিজ করা হল কাতার প্রবাসী গীতিকার জসীম উদ্দিন আকাশের কথায় প্রবাস জীবন ও বানিয়া বন্ধু ২.০ নামে দুইটি গান, গান দুইটি গেয়েছেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পী সালমা ও দুই বাংলা এবং কলকাতার জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পী আকাশ সেন, অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকেই কাতারে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত দুইটি গানের উদ্বোধন ঘোষণা করেন।

কাতার প্রবাসী গীতিকার জসীম উদ্দিন আকাশের কথায় প্রবাস জীবন ও বানিয়া বন্ধু ২.০ নামে দুইটি গান বিডি২৯ মাল্টিমিডিয়ার ইউটিউব চ্যানেল এ রিলিজ করা হয়েছে, গান দুইটি গেয়েছেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পী সালমা ও দুই বাংলা এবং কলকাতার জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পী আকাশ সেন, বৃহস্পতিবার রাতে কাতারের রাজধানী দোহা ওল্ড সালাতা চার তারকা গুকলাম পার্ক হোটেলের বল রুমে এ গান রিলিজ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি কাতারে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত জসীম উদ্দিন এনডিসি কে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন ছোট মনি আনাস উদ্দিন জারিফ।

অনুষ্ঠানে সংক্ষিপ্ত আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়, এতে অংশ নেন, বিডি২৯ মাল্টিমিডিয়া ইউটিউব চ্যানেলের কর্ণধার গীতিকার জসীম উদ্দিন আকাশ, ব্রান্ডিং ম্যানেজার আনোয়ার হোসেন মামুন, বাংলাদেশ কমিউনিটির সভাপতি আনোয়ার হোসেন আকন, এস এম ফরিদুল হক, বীর মুক্তিযোদ্ধা ওমর ফারুক চৌধুরী, সফিকুল ইসলাম তালুকদার বাবু, মাহবুবুর রহমান চৌধুরী বাবু, অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন কাজী আশরাফ হোসাইন।

কাতারে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জসীম উদ্দিন এনডিসি বলেন, প্রবাসী গীতিকারের গান রিলিজ অনুষ্ঠানে আসতে পেরে আমি আনন্দিত, প্রবাস জীবনে এতো কর্মব্যস্তার মাঝে সৃষ্টিশীল কাজ গান লেখা কাতার প্রবাসী গীতিকারের কাজ দেখেও আমি আনন্দিত, রিলিজকৃত দুইটি গান দর্শক প্রিয়তা পাবে বলে আমি মনে করি। তার এই কাজ দেখে অনন্য প্রবাসীরা উৎসাহিত হবে, প্রবাসে এগিয়ে যাওয়ার জন্য।

অনুষ্ঠানে রিলিজকৃত দুইটি গান টিভি স্ক্রিনে প্রদর্শন করা হয়, উপস্থিত দর্শকেরা গান দুইটি উপভোগ করেন।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ দূতাবাসের কাউন্সিলর ও দূতালয় প্রধান মাহবুব রহমান, শ্রম প্রথম সচিব তন্ময় ইসলাম, কাতারের রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, সাংবাদিক, বাংলাদেশ কমিউনিটিসহ বিপুল সংখ্যক নারী পুরুষ উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠান শেষে দূতাবাস কর্মকর্তা ও কমিউনিটির সিনিয়রদের নিয়ে কেক কাটা ও রাতে নৈশভোজের মধ্যে দিয়ে অনুষ্ঠান সমাপ্ত হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *