বাংলাদেশ-রাশিয়ার টিকার চুক্তি চূড়ান্ত পর্যায়ে।

জিবি বার্তা ডেস্কে :  রাশিয়ার কাছ থেকে করোনার টিকা স্পুতনিক-ভি কেনা এবং বাংলাদেশে উৎপাদন নিয়ে চুক্তি প্রায় চূড়ান্ত বলে জানিয়েছেন ঢাকায় নিযুক্ত রুশ রাষ্ট্রদূত আলেকজান্ডার ইগনাতোভ।

রোববার বিকেলে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর একে আব্দুল মোমেনের সাথে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাক্ষাৎ শেষে এ কথা জানান রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত।

পুরো প্রক্রিয়াটি কিছুটা জটিল হলেও দ্বিপাক্ষিক আলোচনার মাধ্যমে সব বিষয় চূড়ান্ত হবে জানিয়ে তিনি বলেন, চুক্তি প্রায় হয়ে গেছে এবং ভালো মতই হবে। এটা খুব দ্রুতই হবে।তিনি বলেন, করোনা মোকাবিলায় রাশিয়া বাংলাদেশের জনগণকে সহায়তা করবে এবং প্রয়োজনীয় সবকিছু সরবরাহ করবে।

ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট থেকে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার কোভিশিল্ড টিকার নতুন চালান না আসায় বাংলাদেশ রাশিয়া ও চীনের কাছ থেকে টিকা কিনতে চেষ্টা চালাচ্ছে। এ জন্য দেশটির সঙ্গে চুক্তির প্রক্রিয়া শুরুর কথা আগেই জানিয়েছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেন। রোববার রুশ রাষ্ট্রদূত জানালেন চুক্তির সর্বশেষ অবস্থা।
টিকা কেনার চলমান আলোচনা ও প্রচেষ্টার মধ্যে রোববার চীনের দ্বিতীয় টিকা হিসেবে বাংলাদেশে জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন দেয়া হয়েছে সিনোভ্যাক লাইফ সায়েন্সেস কোম্পানির তৈরি করোনাভাইরাসের টিকা। ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর রোববার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে সেই অনুমোদন দেয়ার কথা জানিয়েছে।এ নিয়ে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে মোট পাঁচটি টিকার জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন দিল বাংলাদেশ সরকার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *